যোগাসনে হে মহাযোগী
কে তুমি বসিয়া তরুতলে?
তপের তাপেতে শীর্ণ শরীর
শ্রীমুখেতে তবু জ্যোতি খেলে।।
হেরি রাজ টিকা ললাটে তোমার
মনে হয় বুঝি রাজার কুমার।
কাহার প্রাসাদ আঁধার করিয়া
ত্রিভুবন যোগী সাজিলে।।
ত্রিতাপ তাপিত জীবের উদ্ধার
করিতে তুমি কি আসিলে এবার?
প্রেম ও মৈত্রী করিতে প্রচার
সব আশা সুখ ত্যাগিলে।।

{গানটি না পড়া গেলে বিকল্প লিংক}
{If you can’t read it, click here}

Advertisements

চলো পুণ্যধামে, তীর্থ চাকলা গ্রামে,
যেথায় প্রভু জন্ম নিলেন লোকনাথ নামে।
মাগো বলো হৃদবলে
যেন শিব-শম্ভু দলে
পিতা রামনারায়ণ ধন্য সাধন বলে।
জয় জয় লোকনাথ নাম,
চলো তীর্থ চাকলাগ্রাম।।
জগত জনে উদ্ধারিতে
এলেন প্রভু মানবরূপে
গুরু শ্রীভগবান গাঙ্গুলী মহাপ্রাণ
দিয়ে দীক্ষা দান হলেন মহীয়ান।।
পুণ্য আত্মা বেণীমাধব
ছিলেন বাবার বান্ধব
হিমালয়ের কন্দরে
পঁচিশ বছরকাল ধরে
হলেন হট্টযোগী, তীর্থ রাজযোগী।।
বহু তীর্থ ঘুরে ঘুরে
পূর্ণ ব্রহ্ম রূপ ধরে
প্রভু চির জ্যোতিস্মান
দিলেন মুক্তির সন্ধান
করো তাঁর ধ্যান দিয়ে মনপ্রাণ।।

{গানটি না পড়া গেলে বিকল্প লিংক}
{If you can’t read it, click here}

জীবন প্রভাতে মরণের সাথে
বলো জয় রামকৃষ্ণ রে।
বলো রামকৃষ্ণ, জপ রামকৃষ্ণ,
ভজ মন রামকৃষ্ণ রে।।
জয় গুরু ব্রহ্মা বিষ্ণু মহেশ্বর
সহস্র স্বরে তুমি পরমেশ্বর।
জয় গুরু জিকি জয়
বলো রে মণির আশ্রয়।
শান্ত হবে গো মন প্রাণ রে।।
লজ্জা পটাবৃতা দেবী কৃপাময়ী
স্নেহময়ী জননীর জয়।
জয় জ্ঞানদায়ীকে দেবী সারদে
বরা ভয়দায়ীকের জয়।।
মূর্ত মহেশ্বর উজ্জ্বল ভাস্কর
বিবেকানন্দর জয়।
জয় রামকৃষ্ণ ভক্তগণ জয়
আনন্দে জয়গান গাহ মন রে।।

{গানটি না পড়া গেলে বিকল্প লিংক}
{If you can’t read it, click here}

জয়তু জয়তু রামকৃষ্ণ
জয় ভব ভয়হারী হে।
জয়তু জয়তু পরব্রহ্ম
জয় নররূপধারী হে।।
কাম কাঞ্চন আঁধারে
ধরনী ডুবিলে হে রে।
উদিলে সূর্য্য অমৃত বীর্য
যুগে যুগে অবতরী হে।।
মহা সমন্বয় তরে
রামকৃষ্ণ একাধারে।
ডাকছ কেন সকাতরে
জগতের নর-নারী হে।।
শুনেছি অভয় বাণী
তুমি জগচ্চিন্তামণি।
তোমারই দ্বারে অতি কাতরে
এসেছি দীন ভিখারী হে।।

{গানটি না পড়া গেলে বিকল্প লিংক}
{If you can’t read it, click here}

ভব সাগর তারণ কারণ হে।
রবি নন্দন বন্ধন খন্ডন হে।
শরনাগত কিঙ্কর ভীত মনে।
গুরুদেব দয়া কর দীন জনে।।
হৃদি কন্দর তামস ভাস্কর হে।
তুমি বিষ্ণু প্রজাপতি শঙ্কর হে।
পরব্রহ্ম পরাৎপর বেদ ভণে।
গুরুদেব দয়া কর দীনজনে।।
মন বারণ শাসন অঙ্কুশ হে।
নরত্রান তরে হরি চাক্ষুষ হে।
গুণগান পরায়ণ দেবগণে।
গুরুদেব দয়া কর দীন জনে।।
কুলকুণ্ডলিনী ঘুম ভঞ্জক হে।
হৃদিগ্রন্থি বিদারণ কারক হে
মম মানস চঞ্চল রাত্রি দিনে।।
গুরুদেব দয়া কর দীন জনে।।
রিপুসূদন মঙ্গলনায়ক হে।
সুখ শান্তি বরাভয় দায়ক হে।
ত্রয় তাপ হরে তব নাম গুনে।
গুরুদেব দয়া কর দীন জনে।।
অভিমান প্রভাব বিনাশক হে।
গতিহীন জনে তুমি রক্ষক হে।
চিত শঙ্কিত বঞ্চিত ভক্তি ধনে।
গুরুদেব দয়া কর দীন জনে।।
তব নাম সদা শুভ সাধক হে।
পতিতাধাম মানব পাবক হে।
মহিমা তব গোচর শুদ্ধমনে।
গুরুদেব দয়া কর দীন জনে।।
জয় সদ্গুরু ঈশ্বর প্রাপক হে।
ভব রোগ বিকার বিনাশক হে।
মন যেন রহে তব শ্রীচরণে।
গুরুদেব দয়া কর দীন জনে।।

{গানটি না পড়া গেলে বিকল্প লিংক}
{If you can’t read it, click here}

মঙ্গল দীপ জ্বেলে
অন্ধকারে দু’চোখ আলোয় ভরো প্রভু
তবু যারা বিশ্বাস করে না তুমি আছো
তাদের মার্জনা করো প্রভু।
আ—আ—আ—ও—ও—ও—।।
যে তুমি আলো দিতে
প্রতিদিন সূর্য্য উঠাও
ওদের বুঝিয়ে দাও সেই তুমি
পাথরেও ফুল যে ফোটাও
জীবন মরুতে করুণাধারায় ঝরো প্রভু।।
বলো তার কি অপরাধ
জন্ম হয়েছে যার পাঁকে
তোমার ক্ষমা দিয়ে তুমি
ফোটাও পদ্ম করে তাকে
ভুল পথে গেলে তুমি এসে হাত ধরো প্রভু।।

{গানটি গেয়েছেন লতা মুঙ্গেশকর ও সুর করেছেন বাপ্পী লাহিড়ী}

[গানটি না পড়া গেলে বিকল্প লিংক]
[If you can’t read it, click here]

জয় রাধে রাধে কৃষ্ণ কৃষ্ণ
একবার গোবিন্দ গোবিন্দ বলো রে।
রাধে গোবিন্দ গোবিন্দ গোবিন্দ গোবিন্দ
গোবিন্দ গোবিন্দ গোবিন্দ গোবিন্দ
দয়া নিপিরাম জপ রে।।
ছাড়ো রে মন কপট চাতুরী
বদন ভরিয়া বলো হরি
নাম পরম ব্রহ্ম জীবের মোক্ষ ধর্ম
অধর্ম কুধর্ম ছাড়ো রে।।
তেজ রে মন ভবেরই আশা
অজপা নামে রাখো রে দিশা
গোবিন্দ রাম রাম বলো রে বদনে
গোবিন্দ গুরু গোবিন্দ রাম নাম
বলো রে বদনে
নয়ন নীড়ে ভাসো রে।।

[গানটি না পড়া গেলে বিকল্প লিংক]
[If you can’t read it, click here]