চিঠি লিখি তোমার কাছে ব্যথার কাজলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।
প্রথম নিয়ম ভালবাসা,
তুমি বুঝেই নিও মনের ভাষা,
আমার গোপন আশা ভিজিয়ে দিলাম নয়ন জলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।
সেই বাসরে শূন্য হিয়া,
আমি বসে আছি পথ চাহিয়া,
কান্দে মন পাপিয়া গুমরিয়া
যে বুকের চরে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে,
চিঠি লিখি তোমার কাছে ব্যথার কাজলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।
যে বকুলের তলে বসে শুনাইতে বাঁশি,
সেই বকুলের মুকুলের আজ গন্ধ ভালোবাসি ।
ছিড়ে গেছে গাঁথা মালা,
ওগো আমার লাগি দারুণ জ্বালা,
কান্দি একলা ঘরে কুলবালা,
বসে নিরলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।
ভুলে যাওয়া পথটি ধরে
ভুল করে এসে,
পারো যদি দেখে যেও দিবসের শেষে ।
আমি একলা থাকি পরের ঘরে,
তুমি দেখে যেও নয়ন ভরে,
ওগো কেমন আছি বন-বিহগী বাঁধা শিকলে ।
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।
কি যে লিখি, কি যে বাকি
পাইনা খুজিয়া,
অবলার না বলা ব্যথা
নিও বুঝিয়া ।
চিঠি আমি করি ইতি,
তুমি আমার প্রতি রেখো প্রীতি,
রসিকের শেষ মিনতি
তোমার চরণ-কমলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।
চিঠি লিখি তোমার কাছে ব্যথার কাজলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।