আধুনিক গান


বড় ইচ্ছে করছে ডাকতে, তার গন্ধে মেঘে ঢাকতে,
কেন সন্ধ্যে সন্ধ্যে নামলে সে পালায়,
তাকে আটকে রাখার চেষ্টা, আরো বাড়িয়ে দিচ্ছে তেষ্টা,
আমি দাঁড়িয়ে দেখছি শেষটা জানলায় |
বোঝেনা সে বোঝেনা, বোঝেনা সে বোঝেনা |
বোঝেনা বোঝেনা বোঝেনা |

পায় স্বপ্ন স্বপ্ন লগ্নে, তার অন্য অন্য ডাকনাম,
তাকে নিত্যনতুন যত্নে কে সাজায়,
সব স্বপ্ন সত্যি হয় কার, তবু দেখতে দেখতে কাটছি
আর হাঁটছি যেদিকে আমার দু-চোখ যায় |

বোঝেনা সে বোঝেনা, বোঝেনা সে বোঝেনা |
বোঝেনা বোঝেনা বোঝেনা |

আজ সব সত্যি মিথ্যে,দিন বলছে যেতে যেতে,
মন গুমরে গুমরে মরছে কি উপায়,
জানি স্বপ্ন সত্যি হয় না, তবু মন মানতে চায় না,
কেন এমন রাত্রি নামছে জানলায় |
বোঝেনা সে বোঝেনা, বোঝেনা সে বোঝেনা |
বোঝেনা বোঝেনা বোঝেনা |
এটা গল্প হলেও পারতো, পাতা একটা আধটা পড়তো,
খুব লুকিয়ে বাঁচিয়ে রাখতাম তাকে,
জানি আবার আসবে কালকে, নিয়ে পালকি পালকি ভাবনা,
ফের চলে যাবে করে একলা আমাকে |
বোঝেনা সে বোঝেনা, বোঝেনা সে বোঝেনা |
বোঝেনা বোঝেনা বোঝেনা |
বোঝেনা সে বোঝেনা, বোঝেনা সে বোঝেনা |
বোঝেনা বোঝেনা বোঝেনা |

বোঝেনা সে বোঝেনা, বোঝেনা সে বোঝেনা |
বোঝেনা বোঝেনা বোঝেনা |

এসে হীরকদেশে
দেখে হীরের চমক,
এতো খাতির পেয়ে
দেখে রাজার ঝমক
মোদের মন ভরে গেছে খুশীতে…
মোরা সে কথা জানাই

রাজা এতোই রসিক
রাজা এতো দরাজ
রাজা এতো মিশুক
রাজার চিকন মেজাজ,
মোদের প্রান ভরে গেছে তাই…
মোরা সে কথা জানাই…….

বলো হীরক রাজার জয়,
বলো এমন রাজা ক’জন রাজা হয়
কতো দেশে দেশে, ঘুরে শেষে
মন বলে হীরকে এসে
‘এমন রাজা কোন দেশে নাই’
বলে ‘এমন রাজা কোন দেশে নাই’
মোরা সেই কথা জানাই
মোদের গানে, মোদের গানে সেই কথা জানাই…

এ খাঁচা ভাঙ্গব আমি কেমন করে।

দিকে দিকে বাজল যখন
শেকল ভাঙার গান

আমি তখন চোরের মত
হুজুর হুজুর করায় রত।

চাচা আপন বাঁচা বলে
বাঁচিয়েছি প্রাণ

আসলে ভাই একা একা
বাঁচার নামে আছি মরে

এ খাঁচা ভাঙ্গব আমি কেমন করে।।

ও মেয়ের নাম দিব কি ভাবি শুধু তাই আমি
ও তার মনের সাথে মন বেঁধেছি তাই তো এ গান গাই আমি।।

ও কালো চোখের পরে বসেছে কোন্‌ ভ্রমরে
জানি না ডুবলো সে কি রূপের সাগরে।
যত দেখি সাধ মেটে না ফিরে ফিরে চাই আমি।।

পথের ধারে নামহারা ফুল ফোটে কত রাত্রি-দিনে
যে তারে চিনতে পারে দাম দিয়ে তারে কেনে।

ও হাসি ঝর্ণা হয়ে আবেশে যায় ভরায়ে
আমারে অনুরাগে নিল জড়ায়ে।
তারে নিয়ে তাই তো শুধু কাব্য করে যাই আমি।।

আমার ভিনদেশী তারা
একা রাতেরই আকাশে
তুমি বাজালে একতারা
আমার চিলে কোঠার পাশে।

ঠিক সন্ধ্যে নামের মুখে
তোমার নাম ধরে কেউ ডাকে
মুখ লুকিয়ে কার বুকে
তোমার গল্প বলো কাকে?

আমার রাতজাগা তারা
তোমার অন্য পাড়ায় বাড়ি
আমায় ভয় পাওয়া চেহারা
আমি আদতে আনাড়ি।

আমার আকাশ দেখা ঘুড়ি
কিছু মিথ্যে বাহাদুড়ি
আমার চোখ বেঁধে দাও আলো
দাও শান্ত শীতল পাটি
তুমি মায়ের মতই ভালো
আমি একলাটি পথ হাঁঠি…

আমার বিচ্ছিরি একতারা
তুমি নাওনা কথা কানে
তোমার কিসের এত তাড়া?
এ রাস্তা পার হবে সাবধানে…

তোমার গায় লাগেনা ধুলো
আমার দু’মুঠো চাল-চুলো
রাখো শরীরে হাত যদি
আর জল মাখো দুই হাতে…
প্লীজ ঘুম হয়ে যাও চোখে
আমার মন খারাপের রাতে।

আমার রাতজাগা তারা
তোমার আকাশ ছোয়া বাড়ি
আমি পাইনা ছুঁতে তোমায়
আমার একলা লাগে ভারী…

আমার রাতজাগা তারা
তোমার আকাশ ছোঁয়া বাড়ি
আমি পাইনা ছুঁতে তোমায়
আমার একলা লাগে ভারী…

চিঠি লিখি তোমার কাছে ব্যথার কাজলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।
প্রথম নিয়ম ভালবাসা,
তুমি বুঝেই নিও মনের ভাষা,
আমার গোপন আশা ভিজিয়ে দিলাম নয়ন জলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।
সেই বাসরে শূন্য হিয়া,
আমি বসে আছি পথ চাহিয়া,
কান্দে মন পাপিয়া গুমরিয়া
যে বুকের চরে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে,
চিঠি লিখি তোমার কাছে ব্যথার কাজলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।
যে বকুলের তলে বসে শুনাইতে বাঁশি,
সেই বকুলের মুকুলের আজ গন্ধ ভালোবাসি ।
ছিড়ে গেছে গাঁথা মালা,
ওগো আমার লাগি দারুণ জ্বালা,
কান্দি একলা ঘরে কুলবালা,
বসে নিরলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।
ভুলে যাওয়া পথটি ধরে
ভুল করে এসে,
পারো যদি দেখে যেও দিবসের শেষে ।
আমি একলা থাকি পরের ঘরে,
তুমি দেখে যেও নয়ন ভরে,
ওগো কেমন আছি বন-বিহগী বাঁধা শিকলে ।
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।
কি যে লিখি, কি যে বাকি
পাইনা খুজিয়া,
অবলার না বলা ব্যথা
নিও বুঝিয়া ।
চিঠি আমি করি ইতি,
তুমি আমার প্রতি রেখো প্রীতি,
রসিকের শেষ মিনতি
তোমার চরণ-কমলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।
চিঠি লিখি তোমার কাছে ব্যথার কাজলে,
আশা করি পরাণ বন্ধু আছো কুশলে ।।

আমি যাচ্ছি বাবা, আমি যাচ্ছি
চোখ মুছে মুখ তোলো
স্নেহের বাঁধন খোলো
এবার তোমায় দিতেই যে হয়
যাবার অনুমতি।
বাবা খেয়াল রেখো
তুমি তোমার প্রতি।।
আদর সোহাগ দিয়ে যদি
করলি আমায় বড়
কেন তবে এমন করে
কন্যাকে পর করো।
এই যদি গো নিয়ম-নীতি
এই সমাজের বিধান
হাসি মুখে করো বাবা
কন্যা সম্প্রদান।
তবে কেন কান্না চোখে
এই কোন অনুভূতি?
বাবা খেয়াল রেখো
তুমি তোমার প্রতি।।
অফিস যাবার সময় যখন
থাকব না আর আমি
চশমা নিতে ওষুধ খেতে
ভুলো না গো তুমি।
বুক যে আমার যাচ্ছে ভেঙ্গে
মন মানে না মানা
কেমন করে থাকব ছেড়ে
নেই যে আমার জানা।
ওই যে আমার মা দাঁড়িয়ে
দেহেতে নাই প্রাণ
যেন বুকটা চিড়ে যাচ্ছে নিয়ে
কেউ কলিজাখান।
তুমিও তো মেয়ে মা গো
জানোই পরিণতি।
(মাগো) ওমা খেয়াল রেখো
তুমি বাবার প্রতি।।

{গানটি না পড়া গেলে বিকল্প লিংক}
{If you can’t read it, click here}

পরবর্তী পৃষ্ঠা »

Follow

Get every new post delivered to your Inbox.

Join 33 other followers